সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ০৯:০৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
কুমিল্লা বুড়িচংয়ে ৯ম শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে যুবক কারাগারে! কুমিল্লা দেবিদ্বার এলাহাবাদ উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি প্রক্রিয়া গোপনে গঠনের অভিযোগ কুমিল্লায় সাংবাদিকের উপর সন্ত্রাসী হামলা নিরাপত্তায় থানায় জিডি কুমিল্লা তিতাসে জাগর স্বদিচ্ছা ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে দরিদ্রদের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ কুমিল্লা বুড়িচং প্রেস ক্লাবের ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত কুমিল্লায় শিশুকে তেঁতুলের লোভ দেখিয়ে ধর্ষণ শেষে হত্যা, যুবকের মৃত্যুদণ্ড কুমিল্লায় প্রতারণার মামলায় জেল থেকে বের হয়ে এবার অপহরণ করে চাঁদা আদায়ের ঘটনায় গ্রেফতার- ৩ কুমিল্লা সাংবাদিক ও কলামিস্ট জাহাঙ্গীর আলম জাবির এর মায়ের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত চৌদ্দগ্রাম প্রেসক্লাবের নতুন কমিটি গঠন কুমিল্লায় কর্মরত সাংবাদিক সফিউল আলমকে প্রাননাশের হুমকি!থানায় সাধারণ ডায়েরি

রোটা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ব্রাহ্মণপাড়ায়, বেশি আক্রান্ত শিশুরা

Reporter Name
  • Update Time : বুধবার, ২১ ডিসেম্বর, ২০২২
  • ১৮৯ Time View

রোটা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ব্রাহ্মণপাড়ায়, বেশি আক্রান্ত শিশুরা
আতাউর রহমান।।

কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়ায় রোটা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব বৃদ্ধি পেয়েছে। প্রতিদিনই এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেসহ বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতালে যাচ্ছে রোগীরা। চিকিৎসকদের দাবি, সরকারিভাবে এ ভাইরাসের টিকা প্রয়োগ না করায় প্রতি বছরই শীতকালে শিশুরা সহজেই এ ভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছে।

সরেজমিনে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে দেখা যায়, রোটা ভাইরাস আক্রান্ত শিশুদের নিয়ে অভিভাবকরা চিকিৎসাসেবা নিতে প্রতিদিন ভিড় করছে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগ ও বহির্বিভাগে। অবস্থার অবনতি হলে আবার অনেকে তাদের সন্তানদেরকে হাসপাতালে ভর্তি করাচ্ছেন। ভর্তি রোগীদের আবার উন্নত চিকিৎসা পাওয়ার আশায় কেউ কেউ পাড়ি জমাচ্ছেন চাঁদপুরের আইসিডিডিআরবিতে। তবে জানা যায় অধিকাংশ রোগীই সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরছে কম সময়েই।

চিকিৎসকরা বলছেন, রোটাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের বাড়িতে রেখেই চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী চিকিৎসা সম্ভব। ডায়রিয়ার প্রধান ওষুধ ওরস্যালাইন। পাতলা পায়খানাজনিত পানিশূন্যতা পূরণে ওরস্যালাইন প্রধান ভূমিকা পালন করে থাকে। তবে যদি রোগীর অধিক পরিমাণে বমি হতে থাকে সেক্ষেত্রে রোগীকে হাসপাতালে নিয়ে আসার পরামর্শ দিচ্ছেন চিকিৎসকরা। অন্যথায় বাড়িতে রেখেই চিকিৎসা নিতে পরামর্শ দিচ্ছেন সংশ্লিষ্ট চিকিৎসকরা।

এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আবু হাসনাত মোঃ মহিউদ্দিন মুবিন বলেন, ‘শীতকালে রোটাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব প্রতি বছরই কমবেশি দেখা দেয়। এ ভাইরাসের কারণে অধিকাংশ শিশু ডায়রিয়া, বমি ও শ্বাসকষ্টে ভোগে। এ রকম পরিস্থিতিতে অবশ্যই ডায়রিয়া আক্রান্ত রোগীকে খাওয়ার স্যালাইন পর্যাপ্ত পরিমাণে খাওয়াতে হবে। যদি রোগী অতিরিক্ত বমি করে তখন রোগীকে হাসপাতালে নিয়ে আসতে হবে। যেসব শিশু আক্রান্ত হয়নি সেসব শিশুকে পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে। আবহাওয়া পরিবর্তনের কারণে শীতের আমেজ বইছে, শিশুদের গরম কাপড় পরিধান করাতে হবে।”

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 dailysomoyarbangladesh.com
Developed by: A TO Z IT HOST
Tuhin