শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ০৫:৪৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
কুমিল্লা বুড়িচংয়ে ৯ম শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে যুবক কারাগারে! কুমিল্লা দেবিদ্বার এলাহাবাদ উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি প্রক্রিয়া গোপনে গঠনের অভিযোগ কুমিল্লায় সাংবাদিকের উপর সন্ত্রাসী হামলা নিরাপত্তায় থানায় জিডি কুমিল্লা তিতাসে জাগর স্বদিচ্ছা ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে দরিদ্রদের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ কুমিল্লা বুড়িচং প্রেস ক্লাবের ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত কুমিল্লায় শিশুকে তেঁতুলের লোভ দেখিয়ে ধর্ষণ শেষে হত্যা, যুবকের মৃত্যুদণ্ড কুমিল্লায় প্রতারণার মামলায় জেল থেকে বের হয়ে এবার অপহরণ করে চাঁদা আদায়ের ঘটনায় গ্রেফতার- ৩ কুমিল্লা সাংবাদিক ও কলামিস্ট জাহাঙ্গীর আলম জাবির এর মায়ের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত চৌদ্দগ্রাম প্রেসক্লাবের নতুন কমিটি গঠন কুমিল্লায় কর্মরত সাংবাদিক সফিউল আলমকে প্রাননাশের হুমকি!থানায় সাধারণ ডায়েরি

কুমিল্লায় ডাক্তারের প্রচেষ্টায় পাল্টে যাচ্ছে হাসপাতালের রুপ বাড়ছে সেবার মান

Reporter Name
  • Update Time : শুক্রবার, ৩১ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ৩৮০ Time View

ডাক্তারে চেষ্টায় পাল্টাচ্ছে হাসপাতালের রূপ, বাড়ছে সেবার মান

মোঃ আবদুল আউয়াল সরকার,
কুমিল্লা জেলা প্রতিনিধিঃ

অপরিচ্ছন্ন পরিবেশ, অপ্রতুল বেড সংখ্যা, জলাবদ্ধতা, বিশুদ্ধ পানির অভাব, পরিতাক্ত অপারেশন থিয়েটার এমনই অবস্থা ছিল কুমিল্লার বরুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের। তবে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃমোঃকামরুল হাসান সোহেলের প্রচেষ্টায় বদলে যাচ্ছে হাসপাতালের চিত্র। সেবার মান বৃদ্ধি পাওয়ায় দিন দিন বাড়ছে রোগীর সংখ্যা। রোগী ও স্থানীয়দের মধ্যে দেখা দিয়েছে আশার আলো।

আমূল পাল্টে গেছে বরুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিত্র
বর্তমান উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃপঃ কর্মকর্তা ডা. কামরুল হাসান সোহেল যোগদান করার পর থেকে মাত্র ৩ মাসের ও কম সময়ে আমূল পাল্টে গেছে বরুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিত্র। দীর্ঘদিন অবহেলা ও অযত্নে বরুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হয়ে পরেছিল জরাজীর্ণ, নোংরা ও পরিবেশ হয়ে উঠেছিল অস্বাস্থ্যকর। বর্তমান উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃপঃ কর্মকর্তা ডা. কামরুল হাসান সোহেল যোগদান করার পর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পরিবেশ উন্নয়নের জন্য বিভিন্ন পদক্ষেপ নেন।নিয়মিত পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার পাশাপাশি পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার জন্য ক্রাশ প্রোগ্রাম করেন। এখন হাসপাতালটি অন্য যেকোন সময়ের চেয়ে অনেক বেশি পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন এবং বর্তমান পরিবেশ অনেক স্বাস্থ্যকর।

বর্তমান উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃপঃ কর্মকর্তা যোগদানের দুই মাসেরও কম সময়ের মধ্যে অপারেশন শুরুর উদ্যোগ নেন।দীর্ঘদিন স্টোরে অকেজো হিসেবে পরে থাকা এনেসথেসিয়া মেশিন খুঁজে বের করেন, ওটি লাইট সচল করেন, ওটি রুমে পরিত্যক্ত এসি মেরামত করান ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি যোগাড় করে ওটি চালু করেন।গত ৬ ডিসেম্বর বরুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রথমবারের মতো ওটি চালু হয়।ওটি করেন জুনিয়র কনসালটেন্ট সার্জারি ডা. মাহবুব ইবনে মোমেন খান জনি এবং ওটি এসিস্ট করেন মেডিকেল অফিসার ডা. শহীদুল ইসলাম ফরহাদ, এনেসথেসিয়া দেন জুনিয়র কনসালটেন্ট এনেসথেসিয়া ডা. জুলকার নাইন। এরপর থেকে নিয়মিত ওটি হচ্ছে বরুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। বর্তমানে শুধু সার্জারির ওটি হচ্ছে। অপারেশন হয়েছে এমন কয়েকজনের সাথে কথা বলে জানা গেছে এখানে অপারেশনের জন্য তাদের কোন কিছুই কিনতে হয়নি, সব ঔষধপত্র এবং প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সামগ্রী হাসপাতাল থেকেই সরবরাহ করা হয়। জুনিয়র কনসালটেন্ট গাইনি ডা. শাহনাজ আক্তার প্রেষণে কুমিল্লা জেনারেল হাসপাতালে আছেন।অচিরেই বরুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সিজারিয়ান অপারেশন শুরু হবে বলে জানান উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃপঃ কর্মকর্তা। শুধু অপারেশন থিয়েটার চালুই নয় উনি যোগদানের পরপর বরুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নরমাল ডেলিভারির সংখ্যা বাড়ানোর জন্য নরমাল ডেলিভারিতে জন্ম নেয়া নবজাতকদের নিজ উদ্যোগে উপহার প্রদান করেন। বর্তমানে বরুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নরমাল ডেলিভারির সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে।কয়েকজন প্রসূতির সাথে কথা বলে জানা গেছে তারা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃপঃ কর্মকর্তার এই উদ্যোগে খুবই খুশি। তারা আরো জানান বর্তমানে মিডওয়াইফ ও নার্সরা অতীতের যেকোন সময়ের চেয়ে ভাল সেবা দেন, আন্তরিকতার সাথে সেবা দেন।
প্রতিদিন আউটডোরে সেবাগ্রহীতার সংখ্যা ও দিন দিন বেড়েছে।আগে যেখানে প্রতি মাসে ৫০০০-৫৫০০ রোগি সেবা নিতে আসতো এখন সেখানে ৭০০০-৭৫০০ রোগি আসে সেবা নিতে। কয়েকজন রোগির সাথে কথা বলে জানা গেছে আগে রোগিরা সব ঔষধ হাসপাতাল থেকে পেতো না বর্তমান উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃপঃ কর্মকর্তা যোগদানের পর থেকে বদলে যায় হাসপাতালের চিত্র এবং এখন তারা সব ঔষধ হাসপাতাল থেকেই পান তারা।
সেবার সাথে সরকারি কোষাগারে রেভিনিউ জমার পরিমাণ ও বর্তমানে বেড়েছে কয়েকগুণ। আগে যেখানে ৩৩০০০-৩৪০০০ টাকা রেভিনিউ জমা হতো সেখানে গত নভেম্বর মাসে রেভিনিউ জমা ১,০৭,০০০ টাকার বেশি।
বরুড়া উপজেলার জনগণকে নিয়মিত স্বাস্থ্য সেবা দেয়ার পাশাপাশি উপজেলার জনগণকে করোনা মহামারীর হাত থেকে রক্ষার জন্য নিয়মিত কোভিড ভ্যাক্সিনেশন এর কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন। এই পর্যন্ত ১,৬০,০০০ এর ও বেশি জনগণকে করোনার ১ম ডোজ দেয়া হয় এবং প্রায় ৯৭,০০০ জনগণকে করোনার ২য় ডোজ দেয়া হয়।গত ২৭ ডিসেম্বর থেকে ১২-১৭ বছর বয়সী শিক্ষার্থীদের ফাইজার ভ্যাক্সিন এর ১ম ডোজ দেয়ার কার্যক্রম শুরু হয় এই পর্যন্ত ১০,০০০ এর বেশি শিক্ষার্থীকে ফাইজার ভ্যাক্সিন এর ১ম ডোজ দেয়া হয়।
মাঠ পর্যায়ে কমিউনিটি ক্লিনিক নিয়মিত পরিদর্শন করেন বর্তমান উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃপঃ কর্মকর্তা এতে করে মাঠ পর্যায়ে স্বাস্থ্য সেবা ও অনেক গতি পেয়েছে।নিয়মিত ইপি আই সেশন ও পরিদর্শন করেন তিনি।
বরুড়া উপজেলার জনপ্রতিনিধি, প্রশাসন সহ সাধারণ জনগণ বর্তমান উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃপঃ কর্মকর্তা ডা. কামরুল হাসান সোহেলের ডায়নামিক কর্মকাণ্ডের ভূয়সী প্রশংসা করেন এবং তার হাত ধরে বরুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে উন্নয়নের যে ধারার সূচনা হয়েছে তা অব্যাহত থাকবে সেই আশাবাদ ব্যক্ত করেন এবং অচিরেই বরুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স একটি মডেল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পরিণত হবে এই প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 dailysomoyarbangladesh.com
Developed by: A TO Z IT HOST
Tuhin